| ঢাকা, বাংলাদেশ | শনিবার, ৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ |
1675274731.jpg 1647622201.jpg

বিভাগ : আন্তর্জাতিক তারিখ : ২৪-০১-২০২৩

ভারত বিশ্বের সবচেয়ে বড় বস্তি খালি করছে, কী হবে দশ লাখ মানুষের?


  অনলাইন ডেস্ক


ভয়েস এশিয়ান, ২৪ জানুয়ারী, ২০২৩।। বদলে যাবে বিশ্বের সবচেয়ে বড় বস্তি ধারাভি। এটি ভারতের অন্যতম নগরী মুম্বাইয়ে অবস্থিত। এই  বস্তি এলাকাকে নতুন রূপ দেবে আদানি গোষ্ঠী।

পাঁচ হাজার ৩৯ কোটি টাকা দিয়ে ধারাভি রিডেভেলপমেন্ট প্রকল্পের বরাত পেয়েছে আদানি গোষ্ঠী। মুম্বাইয়ে ২৬৯ হেক্টর জমির ওপর গড়ে ওঠা এই বস্তিতে বসবাস করেন ১০ লাখ মানুষ। এই বস্তিতেই শুটিং হয়েছিল স্লামডগ মিলিওনেয়ার সিনেমাটির।

পরিকল্পনা অনুযায়ী, ধারাভির বাসিন্দাদের আধুনিক ফ্ল্যাট দেয়া হবে। আর তারা চলে যাওয়ার পর মুম্বাইয়ের প্রাইম জায়গায় থাকা এই ধারাভির জমি ঠিক করে তা বিক্রি করবে আদানি গোষ্ঠী। আর এখানকার  জমি, বাড়ি বা ফ্ল্যাটের দাম যে আকাশছোঁয়া হবে তা বলে দেয়ার অপেক্ষা রাখে না। 

খালি জায়গা কিছু অংশ বাণিজ্যিক কাজকর্মের জন্য রাখা হবে। বাকিটায় আবাসিক ফ্ল্যাট হবে এবং সবকিছুই বর্তমান বাজারদরে বিক্রি করা হবে।

তবে ধারাভির সব বাসিন্দা এই পরিকল্পনায় উৎসাহিত নয়। যেমন ৫১ বছর বয়সি কুমোর শরিফা হুসেন। ৭০ বছর আগে তার পরিবার গুজরাট থেকে ধারাভিতে এসেছিল। তিনটে বাড়ি ছাড়াও তাদের একটি গুদাম ও একটি কাজ করার জায়গা আছে। শরিফার মনে হচ্ছে, তাদের যে নতুন জায়গায় নিয়ে যাওয়া হবে, সেখানে কাজ করার ও তা গুদামে রাখার জায়গা পাওয়া যাবে না।

আল জাজিরাকে হুসেন জানিয়েছেন, তাদের ৩০০-৩৫০ বর্গফুটের ফ্ল্যাট দেয়া হবে। তাতে তার কী করে চলবে? তিনি চান, তিন ছেলেকে আলাদা ফ্ল্যাট দেয়া হোক। তাছাড়া তার জিনিস তৈরি ও শুকানোর জায়গা দেয়া হোক। মাসে পাঁচ হাজার টাকার কাঁচামাল কেনেন তিনি। আর মাসে জিনিস বিক্রি করে পান ৪০ হাজার টাকা। এই টাকায় সংসার চালাতে রীতিমতো কষ্ট হয়। তবে দেওয়ালির সময় দুই মাস তারা দুই লাখ টাকা করে লাভ করেন।

আফজাল খানের চারটি গুদাম আছে ধারাভিতে। তিনি সেগুলো ভাড়ায় দিয়ে রেখেছেন। বলা হয়েছে, যারা ধারাভিতে থাকেন ও কাজ করেন, তাদের ফ্ল্যাট ও কাজের জায়গা দেওয়া হবে। কিন্তু তাকে কী দেওয়া হবে, আদৌ কিছু দেওয়া হবে কি না, তানিয়ে রীতিমতো চিন্তিত আফজাল।

জয়েশ জৈন ধারাভিতে প্লাস্টিক রিসাইকেল করার ব্যবসা করেন। তিনি ৩০ জনকে কর্মসংস্থান দিয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, সরকারের তরফে কেউ তাদের সঙ্গে কথা বলেনি। তারা কী চান সেটা কেউ জানতে চায়নি। এই অবস্থায় তার ব্যবসা ও ৩০ জন কর্মচারীর কী হবে তানিয়ে চিন্তায় ঘুম হচ্ছে না তার।

ধারাভির মানুষদের জন্য কাজ করে উর্বজ। এই সংগঠনের অন্যতম অংশীদার সমিধা পাটিল বলেছেন, ধারাভির মানুষকে সাহায্য করা দরকার। তাদের যেন দুর্গত করা না হয়। ধারাভির প্রায় প্রতিটি বাসিন্দা তাদের ওই বাড়ির জন্য পয়সা খরচ করেছে। খুব কষ্টে থাকছে। তাই তাদের দিকটা দেখতে হবে।

হাউসিং রাইটস কর্মী রমেশ প্রভুর মতে, ২০ বছর আগেই ধারাভির পুনর্নিমাণ হওয়া উচিত ছিল। অনেকগুলো এনজিও এখানে সমীক্ষা করেছে। সরকারের উচিত তাদের কাছ থেকে তথ্য জোগাড় করা।

আদানি গোষ্ঠীর এক মুখপাত্র বলেছেন, তারা সরকারের কাছ থেকে লেটার অফ ইনটেন্স না পেলে এই বিষয়ে কিছু বলবেন না।

সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, প্রতিটি ফ্ল্যাটে নিজস্ব টয়লেট থাকবে। প্রতিটি মানুষের জীবীকার বিষয়টি মাথায় রাখা হবে এবং সেইমতো ব্যবস্থা নেয়া হবে। সরকারি কাজ শেষ হওয়ার পর প্রকল্পের বিস্তারিত রূপরেখা প্রকাশ করা হবে।

তবে বিশ্লেষকরা এই দশ লাখ মানুষের সবকিছু সঠিকভাবে হবে কি না তা নিয়ে সন্দিহান।

 





 

আন্তর্জাতিক

পাকিস্তান আইএমএফের শর্তে কোণঠাসা

মালয়েশিয়ায় বৈধ হতে ৫ দিনে ৫০ হাজার অভিবাসী কর্মীর আবেদন

সেনা শাসনের দ্বিতীয় বার্ষিকীতে মিয়ানমারে নীরব প্রতিবাদ

ইসরায়েলের ‘হাইফা বন্দর’ কিনে নিল ভারতের আদানি

মেয়েকে উপদেষ্টা বানালেন আনোয়ার ইব্রাহিম, স্বজনপ্রীতির অভিযোগ

আদানি গোষ্ঠীর বিদ্যুৎ প্রকল্পের বিরুদ্ধে মামলা

ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালাতে মাত্র এক মিনিট লাগবে: বরিসকে পুতিন

পাকিস্তানে মসজিদে বিস্ফোরণ, হতাহত ৯২

রাশিয়া নয়, আরেক যুদ্ধে লড়ছেন জেলেনস্কি!

ওড়িশার স্বাস্থ্যমন্ত্রীর বুকে পুলিশের গুলি

আন্তর্জাতিক বিভাগের আরো খবর


1585646778.gif 1585646793.jpg 1585646805.gif

1615174445.gif

1670554646.jpg




Copyright © 2017-2023   |   Voice Asian - Asian Based News Portal
Contact: voiceasianinfo@gmail.com

   
StatCOUNTER