| ঢাকা, বাংলাদেশ | রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১ |
1630810878.jpg 1629130011.gif

বিভাগ : জাতীয় তারিখ : ১৭-০৯-২০২১

থার্ড টার্মিনালের কাজ চলছে পুরোদমে


  ভয়েস এশিয়ান ডেস্ক


ভয়েস এশিয়ান, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১।। আর মাত্র দুই বছর। এরপর বাংলাদেশেই আন্তর্জাতিক মানের সুবিধাসম্পন্ন ও চোখ ধাঁধানো একটি টার্মিনালের স্বপ্ন বাস্তবে রূপ নেবে। সেই লক্ষ্যে হজরত শাহজালাল (রহ.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে থার্ড টার্মিনালের নির্মাণকাজ চলছে পুরোদমে। প্রতিদিন ৫ হাজারের অধিক লোক কাজ করছে। ইতোমধ্যে নির্মাণকাজের অগ্রগতি হয়েছে ২২ শতাংশ। পরিকল্পনা অনুযায়ী, চলতি বছরের আগস্ট পর্যন্ত থার্ড টার্মিনালের ১৯ ভাগ কাজ শেষ হওয়ার কথা ছিল। কাক্সিক্ষত কাজের চেয়ে ৩ শতাংশ বেশি কাজ সম্পন্ন করেছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। ২০২৩ সালের সেপ্টেম্বরে এই টার্মিনাল উদ্বোধন করা হবে বলে জানিয়েছেন প্রকল্প পরিচালক বেসরকারি বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মাকসুদুল ইসলাম।

তিনি বলেন, এটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অগ্রাধিকার প্রকল্প। দ্রুত কাজ শেষ করার নির্দেশনা রয়েছে। বেবিচক চেয়ারম্যান সার্বক্ষণিক তদারক করছেন। আমাদের টার্গেট হচ্ছে যত দ্রুত সম্ভব কাজ শেষ করা। সেই লক্ষ্যে কাজ করে আমরা সফলতাও পাচ্ছি। আগস্ট পর্যন্ত আমাদের টার্গেট ছিল ১৯ শতাংশ কাজ শেষ করা। কিন্তু ঠিকাদারদের আন্তরিকতা এবং শ্রমিকদের পরিশ্রমে ইতোমধ্যে ২২ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। ২০২৩ সালের সেপ্টেম্বরে থার্ড টার্মিনালের উদ্বোধন হবে।

তিনি জানান, ইতোমধ্যে বেজমেন্টের কাজ শেষ হয়েছে। টার্মিনালের মূল ভিত্তির ৩ হাজার ৪৯টি পিলার হয়ে গেছে। প্রতিদিনই একটু একটু করে দৃশ্যমান হচ্ছে টার্মিনাল। এই থার্ড টার্মিনাল নির্মাণকাজে অর্থায়ন করছে জাইকা। প্রকল্পটি বাস্তবায়নে কাজ করছে জাপান ও কোরিয়ার কোম্পানির সমন্বয়ে গঠিত অ্যাভিয়েশন ঢাকা কনসোর্টিয়াম (এডিসি)।

প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা বলছেন, থার্ড টার্মিনাল নির্মিত হচ্ছে ৩৫০ একর জমির ওপর। বিশ্বখ্যাত স্থপতি রোহানি বাহারিনের নকশায় টার্মিনালে ২ লাখ ৩০ হাজার বর্গমিটার আয়তনের একটি ভবন তৈরি হবে। তিন তলাবিশিষ্ট এ টার্মিনাল ভবনটির স্থাপত্য রীতিতে আনা হবে অনন্য নান্দনিকতা। টার্মিনাল ভবনের বহির্বিভাগে থাকবে চোখ ধাঁধানো নকশা। বর্তমানে বিমানবন্দরের দুটি টার্মিনালে যাত্রী ধারণক্ষমতা বছরে ৬৫ থেকে ৭০ লাখ। থার্ড টার্মিনাল হলে বছরে ২ কোটি মানুষ এখান থেকে ভ্রমণসেবা পাবেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, এতে থাকবে ৪০টি কেবিন এক্সরে মেশিন, ১২টি বোর্ডিং ব্রিজ, ১৬টি কনভেয়ার বেল্ট, ১১টি বডি স্ক্যানার ও টানেল। থাকবে নতুন ইমপোর্ট কার্গো কমপ্লেক্স, ৫৪ হাজার বর্গমিটারের বহুতলবিশিষ্ট কার পার্কিং ও ৬৩ হাজার বর্গমিটারের এক্সপোর্ট কার্গো কমপ্লেক্স। এ ছাড়া থাকবে রেসকিউ ও ফায়ার ফাইটিং স্টেশন এবং ৪ হাজার বর্গমিটার ইকুইপমেন্ট স্টেশন। টার্মিনালের চারদিকে থাকবে নিñিদ্র বাউন্ডারি ওয়াল, সিকিউরিটি গেট, গার্ড রুম ও ওয়াচ টাওয়ার। এর বাইরে ল্যান্ড সাইড, সার্ভিস রোডসহ এলিভেটেড রোড, ওয়াটার সাপ্লাই সিস্টেম, সুয়ারেজ ট্রিটমেন্ট প্লান্ট, ইনটেক পাওয়ার প্লান্ট ডিস্ট্রিবিউশন সিস্টেম, কার্গো কমপ্লেক্সের জন্য সিকিউরিটি ও টার্মিনাল ইকুইপমেন্ট, এয়ারফিল্ড গ্রাউন্ড লাইটিং সিস্টেম, হাইড্রেন্ট ফুয়েল সিস্টেমসহ আনুষঙ্গিক সব সুবিধা থাকবে এ টার্মিনালে। অন্যতম আকর্ষণ হিসেবে রাখা হবে ফানেল টানেল। বোর্ডিং ব্রিজের সঙ্গে থাকবে ১৩টি চেক ইন বেল্ট। পর্যাপ্ত সংখ্যক এক্সেলেটর, সাবস্টেশন ও লিফট সংযুক্ত রাখা হবে। থাকবে রাডার, কন্ট্রোল টাওয়ার, অপারেশন ভবন, ১ হাজার ২৩০টি গাড়ি রাখার ব্যবস্থাসম্পন্ন বহুতল কার পার্ক।

সংশ্লিষ্টরা জানান, ৫ লাখ ৪২ হাজার বর্গমিটারের অ্যাপ্রোনে ৩৭টি উড়োজাহাজ একসঙ্গে রাখা যাবে। ৬৩ হাজার বর্গফুট জায়গায় আমদানি-রফতানি কার্গো কমপ্লেক্স নির্মাণ করা হবে। থাকবে ১১৫টি চেক-ইন কাউন্টার। সব মিলিয়ে বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় বিমানবন্দরের সব সুযোগ-সুবিধা ও অত্যাধুনিক সব প্রযুক্তির ছোঁয়া থাকবে থার্ড টার্মিনালে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, যাত্রীদের যাতায়াত সহজ করতে বিমানবন্দরের তৃতীয় টার্মিনালের সঙ্গে সংযুক্ত থাকবে মেট্রোরেল। এ জন্য তৈরি করা হবে পৃথক একটি স্টেশন। সরেজমিন দেখা যায়, বিশাল এলাকাজুড়ে চলছে নির্মাণযজ্ঞ। নির্ধারিত সময়ের আগে শেষ করার জন্য দিনরাত কাজ করছেন হাজার হাজার শ্রমিক। প্রকল্প এলাকায় কঠোর নিরাপত্তার ব্যবস্থা রয়েছে। নির্মাণকাজের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলী ও শ্রমিক-কর্মচারী ছাড়া ভেতরে কাউকে প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না। করোনা মহামারি থেকে শ্রমিকদের সুরক্ষিত রাখতে প্রকল্প এলাকাতেই শ্রমিকদের থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে। করোনাকালে শ্রমিকরা যাতে সুস্থ থাকেন এবং অসুস্থ হলে পর্যাপ্ত চিকিৎসা পান সে ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। ফলে শ্রমিকরা কাজ করছেন নির্ভয়ে।

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী বলেন, করোনার মধ্যেও কাজ এক দিনের জন্যও বন্ধ হয়নি। এখন পর্যন্ত কাজের অগ্রগতি সন্তোষজনক। এটি হবে বিশ্বের অত্যাধুনিক টার্মিনাল। এটার নির্মাণশৈলী, ডিজাইন, সুযোগ-সুবিধা সব আন্তর্জাতিক মানের হবে। এ টার্মিনালের কাজের সঙ্গে আশকোনার হজক্যাম্প থেকে একটি টানেল করা হবে। এটা দিয়ে হাজীরা হজক্যাম্প থেকে সরাসরি বিমানবন্দরে আসতে পারবেন। এই টার্মিনালের সঙ্গে মেট্রোরেল সংযুক্ত থাকবে। বর্তমান টার্মিনালের দ্বিগুণের বেশি আকারের এই টার্মিনালটি হবে সম্পূর্ণ অটোমেটেড। আমরা আশা করছি, নির্ধারিত সময়ের আগেই কাজ শেষ হবে।

থার্ড টার্মিনালের নির্মাণকাজ প্রসঙ্গে সিভিল অ্যাভিয়েশনের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল এম মফিদুর রহমান বলেন, থার্ড টার্মিনালটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্নের প্রকল্প। প্রধানমন্ত্রী প্রতিনিয়ত আমার কাছ থেকে টার্মিনালের নির্মাণকাজের খোঁজখবর নেন। নতুন টার্মিনালটি দেশের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্র্ণ ভূমিকা রাখবে। এটি চালু হলে যাত্রীদের দুর্ভোগ আর থাকবে না।

বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) প্রধান প্রকৌশলী আবদুল মালেক বলেন, বিশ্বখ্যাত স্থপতি রোহানি বাহারিন সিঙ্গাপুরের চ্যাঙ্গি এয়ারপোর্টের টার্মিনাল-৩, চীনের গুয়াংজুর এটিসি টাওয়ার ভবন, ভারত, পাকিস্তান, মালদ্বীপ, ফিলিপাইন, কম্বোডিয়া, ব্রুনাই, মিয়ানমার ও ভিয়েতনামসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের বিমানবন্দরের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন প্রকল্পের নকশা করেছেন। তিনি আমাদের এই থার্ড টার্মিনালের ভেতরের ভবনটির নকশা করেছেন।

তিনি বলেন, থার্ড টার্মিনালের নির্মাণকাজে ব্যবহৃত প্রতিটি পণ্য আন্তর্জাতিক মানের। গুণগত মান শতভাগ নিশ্চিত করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। প্রতিনিয়ত তিনি নির্মাণকাজ সরেজমিন মনিটরিং করছেন এবং নির্দেশনা দিচ্ছেন।

২০১৭ সালের ২৪ অক্টোবর এই প্রকল্পের অনুমোদন দেয় একনেক। প্রথমে ১৩ হাজার ৬১০ কোটি টাকা ধরা হলেও পরে প্রকল্প ব্যয় ৭ হাজার ৭৮৮ কোটি ৫৯ লাখ টাকা বাড়ানো হয়। ২০১৯ সালের শেষে শুরু করা নির্মাণকাজ শেষ হওয়ার কথা ২০২৩ সালের জুনে।





 

জাতীয়

দেশে কমছে করোনা সংক্রমণ, তবু তৃতীয় ঢেউয়ের শঙ্কা

করোনায় দেশে আরো ৬ মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২৯৩

শতভাগ বাকিতে দেশে আসছে ভয়ংকর মাদক আইস, ধরা পড়লে টাকা মাফ

ত্রিশালে ট্রাকের ধাক্কায় বাসের দুই শিশুসহ ৬ যাত্রী নিহত

ভ্যাপসা গরমে হাঁসফাঁস করছে মানুষ

২০২৫ সালে বাংলাদেশ জিডিপিতে সিঙ্গাপুরকে ছাড়াবে

পদ্মার নিচ দিয়ে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়ায় নির্মাণ হবে টানেল- ফারুক খান

করোনায় বিভিন্ন বন্দরে ২৯ লাখের বেশি যাত্রীর হেলথ স্ক্রিনিং

দেশ বিক্রি করে তো আমি ক্ষমতায় আসবো না: প্রধানমন্ত্রী

খাদ্য উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণ বাংলাদেশ: প্রধানমন্ত্রী

জাতীয় বিভাগের আরো খবর


1585646778.gif 1585646793.jpg 1585646805.gif

1615174445.gif

1629015305.png




Copyright © 2017-2021   |   Voice Asian - Asian Based News Portal
Contact: voiceasianinfo@gmail.com

   
StatCOUNTER